1. nannunews7@gmail.com : admin :
July 15, 2024, 8:56 am
শিরোনাম :
কোটার সমাধান আদালতেই : প্রধানমন্ত্রী কুষ্টিয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তজার্তিক দিবস উদযাপন সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মাদক প্রতিরোধ করা সম্ভব : এডিসি শারমিন আখতার সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জেলার আইনশৃংলা নিয়ণÍ্রণ করা সম্ভব কুষ্টিয়ায় জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন থানায় অভিযোগ দায়ের চরথানাপাড়ায় বসতবাড়ীতে হামলা গৃহবধুসহ আহত ২ কুষ্টযি়ায় জাতীয় র্পাটরি প্রসেডিন্টে ও সাবকে রাষ্ট্রপতি এরশাদরে ৫ম মৃত্যু র্বাষকিী পালতি দৌলতপুরে আবেদের ঘাটে দিনে-দুপুরে ২ রাউন্ড গুলি কুষ্টিয়ায় কোটা বৈষম্য নিরসনে দাবিতে শিক্ষার্থীদের পদযাত্রা এবং স্মারকলিপি প্রদান চুয়াডাঙ্গায় প্রণোদনার প্রভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে রোপা আউশ ধানের চাষ ভেড়ামারায় ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি এর ১০০২ তম শাখার শুভ-উদ্বোধন রেল কর্তৃপক্ষের নিদ্রাভিনয়ে কুমারখালীতে জলাশয় ভরাটের গতি বেড়েছে, তৈরী হচ্ছে টিনসেড ঘর

২১৯টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং বিপুল সংখ্যক দেশীয় অস্ত্র জমা কুষ্টিয়াসহ সিরাজগঞ্জ র‌্যাব দপ্তরে  ৩১৫ চরমপন্থির আত্মসমর্পণ

  • প্রকাশিত সময় Sunday, May 21, 2023
  • 54 বার পড়া হয়েছে

পাবনা প্রতিনিধি ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেছেন কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন এলাকার চরমপন্থি দলের ৩১৫ নেতা ও সদস্য। গতকাল রোববার দুপুর ২টার দিকে সিরাজগঞ্জ হাটিকুমরুল   র‌্যাব ১২ এর কার্যালয়ে চরমপন্থিরা আত্মসমর্পণ করেন।

তারা অস্বাভাবিক জীবন ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় তাদের স্বাগত ও ধন্যবাদ জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, রাজবাড়ী, মেহেরপুর, কুষ্টিয়া ও বগুড়ার ৩১৫ জন চরমপন্থি সদস্য আত্মসমর্পণ করেন। এরা নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থি সংগঠন  সর্বহারা, পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টি এমএল লালপতাকা, জনযুদ্ধ, কাদামাটি পার্টি ও নকশালের আঞ্চলিক নেতা ও সদস্য ছিলেন। আত্মসমর্পণকালে চরমপন্থিরা বিভিন্ন ধরনের ২১৯টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং বিপুল সংখ্যক দেশীয় অস্ত্র জমা দেন। ‘সন্ত্রাসী পেশা ছাড়ি, আলোকিত জীবন গড়ি’ এই শ্লোগানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ১৯৯৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন চরমপন্থি দলের সদস্যরা তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের কাছে আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছিলেন। তারা এখন বিভিন্ন কর্মসংস্থানের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন। সাত জেলার ৩১৫ জন চরমপন্থি আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে তারাও নিশ্চয় সুস্থ ও সুন্দর জীবন শুরু করবেন। তিনি বলেন, পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থা আর আগের মতো নেই। তারা বর্তমানে জলদস্যু, বনদস্যু, চরমপন্থি, মাদক সন্ত্রাসীদের দমন করতে সক্ষম। যেকোনো ধরনের নাশকতা, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নির্মূলে র‌্যাব সোচ্চার। এই অনুষ্ঠানে যেসব চরমপন্থি আত্মসমর্পণ করলেন, তাদের মধ্যে অনেকেই শিক্ষিত। তাদের যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী কর্মসংস্থানের ব্যবস্থার নির্দেশনা দিয়েছেন। যারা আত্মসমর্পণ করলেন এবং যারা এখন আত্মসমর্পণ করেননি যথাযথ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তারা আত্মসমর্পণ করলে তাদেরও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার সুযোগ রয়েছে। আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের বিভিন্ন বক্তারা বলেন, সিরাজগঞ্জ, পাবনা, বগুড়া, মেহেরপুর, কুষ্টিয়া, রাজবাড়ী ও টাঙ্গাইলসহ দেশের বেশ কিছু জেলায় এক সময় চরমপন্থিদের বিশাল দাপট ছিল। ষাট-সত্তরের দশকে বামপন্থি রাজনৈতিক দল হিসেবে এদের অনেকের আবির্ভাব হলেও পরে এক সময় অনেকেই অপরাধে জড়িয়ে পড়েন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640