1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 28, 2024, 3:50 am

কুষ্টিয়া হরিপুরে জুয়া খেলা নিয়ে নিহতের ঘটনায় ২ মামলা, গ্রেফতার-৮

  • প্রকাশিত সময় Sunday, May 21, 2023
  • 50 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘটিত সংঘর্ষে ২ জন নিহতের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। গত শনিবার রাতে নিহত ওমর আলী ও মিরাজ সর্দারের পরিবার বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এদিন দিবাগত রাতে এ মামলায় উভয়পক্ষের ৮ আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শনিবার রাতে নিহত ওমর আলীর মেয়ে জেসমিন আক্তার বাদী হয়ে ১১ জনের নামসহ ৮-১০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। অপরপক্ষে নিহত মিরাজ সর্দারের স্বজন মিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে ১১ জনের নামসহ ১০-১২ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

নিহত ওমর আলীকে হত্যা মামলায় ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের বোয়ালদাহ গ্রামের কান্তিনগর এলাকায় নুরুর ছেলে লালন (৪০), লালনের ভাই আনোয়ার হোসেন (৫০), একই এলাকার আমজাদ বিশ্বাসের ছেলে মশিউর রহমান সবুজ (২৮), সবুজের বড় ভাই জহির রায়হান বাবু (৩৩), মান্নান গাইনীর ছেলে মনিরুল ইসলাম কালু (২৫) এবং মৃত ছাবেদ গাইনীর ছেলে জিন্নাহ গাইনী (৫৫)। এদিকে নিহত মিরাজ সর্দারকে হত্যা মামলায় দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন-কান্তিনগর এলাকায় তিলাম আলীর ছেলে রাকিবুল ইসলাম (২৬) এবং একই এলাকার ইয়াসিন আলীর ছেলে ইসমাইল (৩৭)। এর আগে শুক্রবার ১৯ মে রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের বোয়ালদাহ গ্রামের কান্তিনগর এলাকায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের একজন করে নিহত হন। এ ঘটনায় দুপক্ষের অন্তত ৫ জন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে, বোয়ালদাহ কান্তিনগর এলাকায় এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে জুয়া খেলার আসর বসত। জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার দফায় দফায় দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে রাতে তাদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। এ সংবাদ দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে রাত ১০টার দিকে দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র হাতে একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে দুই পক্ষের ওমর আলী ও মিরাজ সর্দার নামে দুইজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ওমর আলী ও মিরাজ সর্দারকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের কমপক্ষের ১৯ জন গুরুতর হয়ে বর্তমানে কুষ্টিয়া ২শ ৫০ শর্য্যার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ বিষয়ে এসআই সুফল সরকার বলেন, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। দুপক্ষের ২ জন নিহতের ঘটনায় শনিবার রাতে পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। দুপক্ষেরই ৮ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640