1. nannunews7@gmail.com : admin :
May 27, 2024, 12:26 am
শিরোনাম :
উপকূলে ঘূর্ণিঝড়রিমালেরআঘাত আলমডাঙ্গায় ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ঝোড়ো হওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি, খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম আলমডাঙ্গার বাঁশবাড়িয়া গ্রামে ঈদগাহ পূণনির্মাণ নিয়ে দুগ্রুপে চরম বিরোধ বাড়ি ঘর ভাঙচুর আলমডাঙ্গায় মিথ্যা অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করার প্রতিবাদে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন কুষ্টিয়ার মিরপুরের ভেদামারীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে-আহত-১০ কাঙ্খিত সেবা নেই, তবুও ইবির পরিবহন খাতে বছরে বিপুল ব্যয় ! মিরপুরে হাতের রগ কাটা কৃষি ব্যাংক কর্মচারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার কুমারখালীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত জয়নাবাদের তারিকের অবশেষে মৃত্ব্য হত্যাকান্ডঘটিয়েছে চেয়ারম্যান এনামুল হক মঞ্জুঃ আব্দুল মান্নান খান কুষ্টিয়ায় স্বাক্ষর জালিয়াতি কান্ডে সেই প্রতারক মীর সামিউল’র জামিন না মঞ্জুর, একদিনের রিমান্ড মিষ্টি আলু চাষ কৌশল

খোকসায় কিশোর গংয়ের গণপিটুনিতে স্কুল ছাত্র গুরুতর আহত

  • প্রকাশিত সময় Wednesday, August 17, 2022
  • 292 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শোমসপুর এলাকায় কিশোর গংয়ের গণপিটুনিতে স্কুল ছাত্র রাব্বি হোসেন ১৪ গুরুতর আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে শোমসপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। রাব্বি হোসেন শোমসপুর উচ্চ বিদ্যালয় এর নবম শ্রেণীর মানবিক শাখার ছাত্র। সে  খোকসা কালীবাড়ি পাড়ার তহিদুল ইসলামের ছেলে। রাব্বি হোসেন বলেন আমি সকাল বেলা শোমসপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাস করতে যাই। টিফিনের সময় আমি টিফিন খেতে গেলে আমাকে সাইম ও মুগ্ধ আমার বন্ধু আমাকে ডেকে নিয়ে যায়। শোমসপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশের ধান মিলের পিছনে নিয়ে যায়। ওই সময় আমাকে কয়েকজন মিলে বেধড়ক মারপিট করে। তখন আমি চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন ছুটে এসে আমাকে উদ্ধার করে। তখন আমার স্বজনদের কাছে ফোন দিলে আমাকে নিয়ে যায়। রাব্বি হোসেনের মাতা শাহানা খাতুন বলেন আমার ছেলেকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে নিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এতে আমার ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। মারপিটের কারণে আমার ছেলের মলদার দিয়ে মল বের হয়ে শরীরের সম্পূর্ণ জায়গা বিঘ্নিত হয়ে যায়। তিনি আরো বলেন বিদ্যালয়ে দিয়ে আমার ছেলের নিরাপত্তা নেই সেখানে আমি আমার ছেলেকে পড়তে দিতে পারি না। জাহানারা খাতুন বলেন আমার নাতিকে এভাবে মারপিট করেছে আমি এর বিচার চাই। তার বাবা তোহিদুল ইসলাম বলেন  আমার ছেলে বিকেলবেলা আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে আমি খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়।  এ বিষয়ে খোকসা থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করব বলে তিনি জানান। শোমসপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আইন উদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন আগামীকাল স্কুলে আসো এই বলে তিনি ফোনটি কেটে দেন। খোকসা থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমানের সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে তিনি  ঘটনার সত্যতা  স্বীকার করেন। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানান। খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব রিপন বিশ্বাস বলেন বিষয়টি আমি শুনেছি । এ বিষয়ে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640