1. nannunews7@gmail.com : admin :
June 15, 2024, 4:09 am

টিকার জন্য ইবির ৬৪ শতাংশ শিক্ষার্থীর নিবন্ধন সম্পন্ন

  • প্রকাশিত সময় Wednesday, July 28, 2021
  • 111 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ৫ম দফায় নিবন্ধনকৃত ৪ হাজার ২৯৯ শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির ১৫ হাজার ৩৮৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৯ হাজার ৮৭৬ জন টিকার জন্য তালিকাভুক্ত হলো। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও করোনা টিকা মনিটরিং কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান আজ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। উপ-উপাচার্য বলেন, ‘নিবন্ধন করা শিক্ষার্থীদের তালিকা ইউজিসিতে পাঠানো হয়েছে। ইউজিসি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে তথ্য পাঠাবে। তারা ডেটাবেইস আপডেট করলে শিক্ষার্থীরা সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে পারবে। এখনো যেসব শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেনি তাদের দ্রুত নিবন্ধন করতে বলা হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা দ্রুত নিবন্ধন করলে টিকা কার্যক্রম দ্রুত শেষ হবে।’ এদিকে যেসব শিক্ষার্থী ভ্যাকসিন গ্রহণের লক্ষ্যে এখনো নিবন্ধন করেনি অথবা তথ্যগত ভুলের কারণে তালিকা থেকে বাদ পড়েছে তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত গুগল ফরমে নিবন্ধনের নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে যেসব শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের নিবন্ধনের ব্যাপারে এখনো কোনো নির্দেশনা আসেনি। জানা যায়, গত ২ মার্চ অনলাইনে টিকার নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু করে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। এখনো নিবন্ধনের বাইরে ৫ হাজার ৫০৮ জন শিক্ষার্থী। যা মোট শিক্ষার্থীর ৩৬ শতাংশ। বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ‘মহামারিতে টিকা আমাদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ। কিছু শিক্ষার্থী গ্রামে থাকায় ইন্টারনেট সমস্যায় নিবন্ধনের সমস্যায় আছেন। প্রশাসনও অনেক শিক্ষার্থীর কাছে টিকার নিবন্ধন বার্তা পৌঁছাতে পারেনি।’ বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী তানহা মীম বলেন, ‘বাকি ৩৬ শতাংশ শিক্ষার্থী কেন টিকা নিবন্ধনের আওতায় আসতে পারছে না এটা প্রশাসনের ক্ষতিয়ে দেখা দরকার। ১ম বর্ষ ও ২য় বর্ষের বেশির ভাগ শিক্ষার্থীদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। জাতীয় পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক থাকার কারণে এসব শিক্ষার্থী টিকা নিবন্ধন করতে ব্যর্থ হচ্ছেন।’ এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক জি কে সাদিক বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ইউজিসির শিক্ষার্থী বান্ধব সিদ্ধান্ত নিতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্র ও ইন্টারনেট সমস্যা কাটিয়ে শতভাগ টিকা নিশ্চিত করা। ৩৬ শতাংশ শিক্ষার্থীর জন্য বিকল্প উপায়ে নিজ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয়পত্র দিয়ে শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া যেতে পারে।’ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ও করোনা টিকা মনিটরিং কমিটির সদস্যসচিব মুহা. আতাউর রহমান বলেন, ‘আমরা আহ্বান করব যথা সময়ে বিধি মোতাবেক সকল শিক্ষার্থী যেন টিকা নিয়ে নেয়। বাকি ৩৬ শতাংশ শিক্ষার্থীদের কীভাবে টিকার আওতায় নিয়ে আনা যায় সে ব্যাপারে আলোচনা করে সমাধান খোঁজার চেষ্টা করা হবে। তবে এখানে ইউজিসির সমন্বিত উদ্যোগ দরকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সহজ শর্তে টিকার আওতায় আনা দরকার।’ সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, ’ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের টিকা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বারবার নিবন্ধন করার তাগিদ দিলেও সকল শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন কারণে নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসতে পারছি না। বাকি ৩৬ শতাংশ শিক্ষার্থীদের জন্য বিকল্প উপায়ে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে ইউজিসিকে অনুরোধ জানাব।’ প্রসঙ্গত, করোনার কারণে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ইউজিসি শতভাগ টিকা নিশ্চিত করে ক্যাম্পাস খুলে দিতে চায়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640