1. nannunews7@gmail.com : admin :
June 24, 2024, 11:31 pm
শিরোনাম :
১৩ প্রকার যন্ত্রপাতি কেনায় অনিয়মের অভিযোগে দুদকের তদন্ত চলমান চাপ বেড়েছে তিন গুণ কুষ্টিয়া হাসপাতালে, ফাঁকা পড়ে আছে মেডিকেল কলেজের বিশাল ভবন ২৪ রানে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সেমিতে ভারত ৯ শত ৯৮ কোটি ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকার মানব সম্পদের ক্ষতি ঈদযাত্রায় ১৩ দিনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণহানি বেড়েছে ১৩.৩১ শতাংশ খোকসায় আগুনের লেলিহান শিখায় নিঃস্ব ব্যবসায়ীরা আলমডাঙ্গায় ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের গতিশীলতা আনয়ন শীর্ষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত প্রকৌশলী আতিকুজ্জামান থ্রি-ডি প্রিন্টারে যন্ত্রাংশ তৈরি করে সফল হওয়ায় পুরস্কার পেলেন ভেড়ামারায় বিষাক্ত সাপের কামড়ে গৃহবধু’র মৃত্যু ॥ এলাকায় আতংক বিরাজ করছে বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন সম্ভব নয় : মমতা জামরুল চাষ প্রযুক্তি টস জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠালো অস্ট্রেলিয়া

কুষ্টিয়ায় গত এক সপ্তাহে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ১০৯ ॥ শনাক্ত ১০৮৩

  • প্রকাশিত সময় Tuesday, July 27, 2021
  • 90 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলায় গত ৭ দিনে পুরুষ ও নারীসহ ১০৯ জন মৃত্ব্য বরণ করেছেন। পিসিআর ল্যাবে স্যাম্পুল পরীক্ষায় ১০৮৩ জন নতুন করে সণাক্ত হয়েছেন।

গতকাল সোমবার জেলায় ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে ১৯ জন কুষ্টিয়া কারোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ হিসেবে মারা যান ১৫ জন। বাকি চারজন করোনার উপসর্গ নিয়ে একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এ ছাড়া দৌলতপুর, মিরপুর ও কুমারখালী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও তিনজন মারা যান। কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জন করোনা পজিটিভ রোগী মারা যাওয়ার এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৬৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৫৩ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। নমুনা অনুপাতে শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ। কুষ্টিয়া করোনা হাসপাতালে ২০০ শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি আছে ১৮২ জন। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ রোগী ১৪১ জন, বাকি ৪১ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন।

২৭ জুলাই রবিবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জনের করোনা পজেটিভ ও ১ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম জানান, বর্তমানে হাসপাতালে  ১৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৭৪ জন উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ২১০ জন ভর্তি রয়েছেন।

গত ২০ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৯ জনের করোনা পজেটিভ ও ৩ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আব্দুল মোমেন জানান, ওই দিন হাসপাতালে  ১৮২ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৭১ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২৫৩ জন ভর্তি ছিলেন। গত ২১ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৯ জনের করোনা পজেটিভ ও ২ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম জানান। ওই দিন হাসপাতালে  ১৮০ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৭০ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২৫০ জন ভর্তি ছিলেন।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ৪৭৬ জনের নমুনা পরিক্ষা করে ২০২ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪২%৪৩ শতাংশ। গত ২২ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়। এদের মধ্যে ১০ জনের করোনা পজেটিভ ও ৪ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম। ওই দিন হাসপাতালে  ১৮৬ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৫৫ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২৪১ জন ভর্তি ছিলেন।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ৮২ জনের নমুনা পরিক্ষা করে ২১ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৫%৬১ শতাংশ।

গত ২৩ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জনের করোনা পজেটিভ ও ৬ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম। ওই দিন হাসপাতালে  ১৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৫৭ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২৩৬ জন ভর্তি ছিলেন।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ১৭৭ জনের নমুনা পরিক্ষা করে ৫৭ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩২%২০ শতাংশ। গত ২৪ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ জনের করোনা পজেটিভ ও ১ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম। ওই দিন হাসপাতালে  ১৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৬০ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২২৮ জন ভর্তি ছিলেন।

পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে ওই দিন ২৪ ঘন্টায় জেলায় ২০৭ জনের নমুনা পরিক্ষা করে ৬৭ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। তখন শনাক্তের হার ছিল ৩২%০৬ শতাংশ। গত ২৫ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে শনিবার সকাল ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ জনের মৃত্যু বরণ করেন। এদের মধ্যে ১৫ জনের করোনা পজেটিভ ও ৪ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম। বর্তমানে হাসপাতালে  ১৪৮ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৬০ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২০৮ জন ভর্তি রয়েছে।

পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ৮৪১ জনের নমুনা পরিক্ষা করে ২৬০ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। তখন শনাক্তের হার ছিল ৩০%৯১ শতাংশ। গত ২৬ জুলাই কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে রবিবার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গেল ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জনের করোনা পজেটিভ ও ১ জনের করোনা উপসর্গ ছিল বলে নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম জানান, বর্তমানে হাসপাতালে  ১৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী ও ৭৪ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ২১০ জন ভর্তি রয়েছে।

এদিকে কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের  ১০জন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ মোঃ আশরাফুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে ৯জন ইন্টার্ন চিকিৎসক ও ১ জন ইমার্জেন্সি চিকিৎসক। করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসকরা কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে করোনা রুগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিল বলেও জানান তিনি।

এই নিয়ে গত ৭ দিনে কুষ্টিয়া জেলায় ১০৯ জন মৃত্ব্যবরণ করেছেন এবং ১০৮৩ জন নতুন করে করোনা সণাক্ত হয়েছেন।

এদিকে, ১৪ দিনের লকডাউনের  পঞ্চম দিন চলছে। শহরের প্রবেশ পথগুলোতে পুলিশ চেকপোষ্ট বসিয়ে মানুষকে বাধা দেয়ার বৃথা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু মানুষ কোন বাঁধায় মানতে চাচ্ছে না যেকোন অজুহাতে শহরে প্রবেশ করছে। গতকাল সোমবার প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী জেলার কাঁচা বাজারগুলো সকাল ৭টা থেকে খোলা রয়েছে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। রবিবার দিনভর অভিযান চালিয়ে সরকারী বিধিনিষেধ অমান্যকারী ৮০জনের কাছ থেকে ৬৭হাজার ৯শ টাকা জরিমানা আদায় এবং ১ জনকে জেল দিয়েছে জেলা প্রশাসনের সম্বনয়ে গঠিত ভ্রাম্যমান আদালত।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640