1. nannunews7@gmail.com : admin :
April 24, 2024, 10:38 am

দরবারে রাশেদ হত্যার আসামিরা কে কোথায়!

  • প্রকাশিত সময় Friday, June 18, 2021
  • 387 বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের কল্যানপুরে তাছেরের দরবারে ভক্তকে পিটিয়ে হত্যা মামলার পলাতক আসামিরা এখনও ধরা ছোঁয়ার বাইরে। গেল ৬ জুন সকালে দরবারটির স্বেচ্ছাসেবক একই উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের যুবক রাশেদ কে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় সেদিনই মামলা করেন নিহত রাশেদের বাবা আব্দুর রাজ্জাক। এঘটনায় দরবারের তাছের হুজুরসহ মোট দশ আসামির মধ্যে ৬ জনকে ওইদিন মামলার আগেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ,পরে আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয় ওই ছয় আসামিকে। পুলিশের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয় দরবারের হুজুরসহ পলাতক রয়েছে চার আসামি। অজ্ঞাত ১৫ থেকে ২০ জনকে সনাক্তের কাজ চলছে। দৌলতপুর থানা পুলিশের তথ্যমতে, দেশব্যাপী আলোচিত এই ঘটনার দিনে রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে এজাহার জমা পড়ে। এদিকে প্রতিবেদক ও স্থানীয়দের তথ্য মতে ওই রাতে অন্তত ১০টা পর্যন্ত দরবার প্রধান তাছেরসহ দরবার অভ্যান্তরে ঘটনার পর থাকা ব্যাক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ চালায় পুলিশের কর্মকর্তারা। রাশেদ হত্যার খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই সকাল থেকেই দরবার এলাকা নজরে রাখতে শুরু করে পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিভাগ। রাত ১০ টার দিকে পুলিশ কর্মকর্তারা দরাবার এলাকা ত্যাগ করলেও নির্দেশ দেয়া হয় ভিতরের মানুষ বাইরে এবং বাইরের মানুষ ভিতরে না যেতে, তখনও মামলার অন্যতম আসামি দরবার প্রধান তাছেরসহ একাধিক আসামি দরবার এলাকায় অবস্থান করছিলেন। পরদিন ৭ জুন ১৭ নম্বর ওই মামলার ৬ আসামিকে আদালতে প্রেরণ করার পর দৌলতপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয় পলাতক রয়েছেন তাছের হুজুর এবং আরও তিন আসামি। ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও ধরা পড়েনি ওই চার আসামি। ধরে নেয়া যায় ৬ জুন রোববার রাত ১০টার পর থেকে পরদিন সকাল পর্যন্ত সময়েই গা ঢাকা দিয়েছেন তারা। যদিও হত্যাকান্ডের দিন সন্ধ্যার আগেই রাশেদ হত্যায় দরবার প্রধানসহ সংশ্লিষ্টদের জড়িত থাকা এবং সিসি টিভি ফুটেজ মুছে দেয়ার গল্প এলাকায় লোকমুখে ছড়িয়ে পড়েছে। সামজিক যোগযোগ মাধ্যমে ঘটনা পৌছেছে বহুদূর। রাত ১০ টার আগেই দরবার প্রধান তাছেরসহ তার অনুসারীদের জড়িত থাকার অভিযোগ প্রকাশ পায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত গণমাধ্যমে। পলাতক আসামিদের কোন সন্ধান বা জামিনের খবর পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন  দৌলতপুর থানার ওসি নাসির উদ্দিন। এদিকে, বাকি আসামিদের ধরতে তোড়জোড় চলছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো:শফিকুল ইসলাম। হত্যান্ডের পর স্থানীয়দের নানা অভিযোগ জোরদার হয়েছে। জমি দখল ও সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসী। সম্প্রতি দরবার থেকে অবৈধ ভাবে আটকে রাখা হরিণ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। জমি দখলমুক্ত করার প্রশাসনিক নির্দেশেও কোন কাজ হয়নি দরবারে রেসালাত মোজাদ্দেদিয়া দরবারে চরদিয়া’র বিরুদ্ধে। গুঞ্জন উঠেছে , শিগগিরই বড় কাফেলা নিয়ে দরবারে ফিরবেন পলাতক দরবার প্রধান সৈয়দ তাছের আহমেদ। এখনও পলাতক রয়েছে  মামলার এজাহার ভুক্ত আসামি  সুজন,সালাম,কালাম নামের তিন ব্যাক্তি। দরবার প্রাঙ্গনেই গুরুতর ভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয় নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবক রাশেদ কে। পরে এই হত্যার ঘটনায় পূর্ব প্রতিপক্ষের লোকজনকে ফাঁসাতেও চেষ্টা চালায় সৈয়দ তাছের সহ অন্যান্যরা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640