1. nannunews7@gmail.com : admin :
April 24, 2024, 9:48 am

স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, ঘাতক স্বামী গ্রেফতার

  • প্রকাশিত সময় Saturday, February 27, 2021
  • 200 বার পড়া হয়েছে

 

কাগজ প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী রেশমা খাতুনকে (২৪) খুন করার অভিযোগে স্বামী সুমন হোসেন (২৬)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার বিকেল ৩ টায় কুমারখালী বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।আসামী সুমন উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের হোগলা গ্রামের ওহাব আলীর মাদকাসক্ত ছেলে এবং নিহত রেশমা কুমারখালী পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের রেফাজ উদ্দিনের মেয়ে। এরআগে নিখোঁজের দুইদিন পর আজ শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের হোগলা গ্রামে নিজ ঘরের পাশে ময়লার স্তূপ থেকে নিহত রেশমার মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।তবে সেসময় ঘাতক স্বামী পলাতক ছিলেন। পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে সুমনের সাথে রেশমার বিয়ে হয়।গত দুইদিন যাবৎ রেশমা নিখোঁজ ছিলেন। শনিবার দুপুরে স্থানীয়দের নাকে পচা দুর্গন্ধ লাগলে গন্ধের কারন খুজঁতে থাকে।একপর্যায়ে সুমনের বসতঘরের পাশে ময়লার স্তূপ থেকে দুর্গন্ধ ছোড়ানোর ব্যাপার নিশ্চিত হলে স্তূপের কাছে যায় তারা।পরে স্তূপে মানুষের হাতের তিনটি আঙ্গুল দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।পুলিশ এসে ময়লার স্তূপ থেকে একজন মহিলার মরদেহ উদ্ধার করে এবং মরদেহটি দেখে গৃহবধূ রেশমার বলে শনাক্ত করেন নিহতের ভাই সুজন।পরে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।এরপর মরদেহ উদ্ধার করার মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে পলাতক ঘাতক স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।ঘাতক স্বামী পারিবারিক কলহের জের ধরেই স্ত্রীকে খুনের দায় প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। নিহতের ভাই সুজন বলেন স্বামীর বাড়ি থেকে আমার বোন নিখোঁজ হওয়ার পর সম্ভাব্যস্থানে অনেক খোজাঁখুজিঁ করেও পাইনি।পরে দুপুরে লোকমুখে শুনলাম সুমনের বাড়ির পিছন থেকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।তিনি আরো বলেন, আমার বোনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।এর উপযুক্ত বিচার চাই। এবিষয়ে কুমারখালী থানার ওসি মজিবুর বলেন,মরদেহ উদ্ধারের মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে পলাতক ঘাতক স্বামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে খুনের দায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে আসামী।বিস্তারিত জানতে আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।তিনি আরো বলেন, আজ শনিবার দুপুরে স্থানীয়রা পচা গন্ধ ও ময়লার স্তূপে হাতের আঙ্গুল দেখে পলিশকে খবর দেয়।খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে রেশমার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640