1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 27, 2024, 5:36 pm

জেগে উঠা চর এখন রবিশস্যে ভরপুর

  • প্রকাশিত সময় Thursday, February 4, 2021
  • 184 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ ভারতীয় সীমান্তঘেষা কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সংলগ্ন পদ্মার চরে শুরু হয়েছে নানান চৈতালি ফসলের আবাদ। এতে নতুন করে আশার আলো দেখছেন চরের হাজারো মানুষ। প্রায় দুই যুগ আগে পদ্মানদীর ভাঙনে বিলীন হয়ে যায় দৌলতপুরের রামকৃষ্ণপুর আর চিলমারী ইউনিয়ন। পরে সেখানে চর জেগে উঠলেও কোন কাজে আসত না মানুষের। দুর্গম সে চরে এখন ফসলের হাসির ঝিলিক। বিচ্ছিন্ন এ চরের যতদূর চোখ যায় কেবল সবুজ আর সবুজ। যেন কেউ নিপুণ হাতে দিগন্ত জুড়ে সবুজের গালিচা বিছিয়েছে।এক সময়ের দুর্গম এই পদ্মার চর এখন ভুট্টা, গম, মশুর, ছোলা, খেসারিসহ নানা রবি ফসলে ছেয়ে গেছে। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর এবং চিলমারি ইউনিয়নের চরে প্রায় ৯ হাজার হেক্টর জমি এবারে আবাদের আওতায় এসেছে। রামকৃষ্ণপুর এলাকার কৃষক আলী হাসান বলেন, চরের মাটিতে বাদাম খুব ভালো হয়। আমি গত দুই বছর ধরে শুষ্ক মৌসুমে বাদামের চাষ করি।বেশ ভালো ফলন হয়। এছাড়া এই চরে ভুট্টার চাষও হচ্ছে। আবদুল মালেক নামের আরেক কৃষক বলেন, বর্ষায় যেখানে পানি থাকে শুষ্ক মৌসুমে সেখানে পানি শুকিয়ে আসলে আমরা বিভিন্ন ফসলের চাষ করি। গত বছর আমি তিন বিঘার মতো জমিতে ছোলার চাষ করেছিলাম। পলাশ আলী নামের ভুট্টা চাষি বলেন, আমি এই চরের প্রায় ৪ বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছি। গাছ বেশ ভালো হয়েছে। আশা করছি ভালো ফলন পাবো। দৌলতপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, চর এলাকায় চিনাবাদাম, গম, মশুর, ছোলা, ভুট্টা, মটর খেসারিসহ বিভিন্ন ফসল চাষ করা হয়েছে। এবার এই চরাঞ্চল থেকে প্রায় আড়াইশ কোটি টাকার রবিশস্য উৎপাদন করা সম্ভব হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640