1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 28, 2024, 2:44 am

কুষ্টিয়া কেসি টিভি ও কনিকা কেবল নেটওয়ার্কের সাংবাদিক সম্মেলন

  • প্রকাশিত সময় Thursday, June 15, 2023
  • 88 বার পড়া হয়েছে

‘মকবুল গংদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে কার্যকলাপে কুষ্টিয়ায় ডিস ক্যাবল ব্যবসা হুমকির মুখে’

কাগজ প্রতিবেদক ॥ চুরি-ছিনতাই, ডাকাতির পরিবর্তে রীতিমত রাতে বাহিনী দিয়ে কুষ্টিয়া শহরের খাজানগরের মকবুল গংরা কুষ্টিয়া ডিশ লাইন সরবরাহকাজে নিয়োজিত ওভারহেড অপটিক্যাল ফাইবার বেপরোয়াভাবে কেটে চলেছে। এতে করে কুষ্টিয়ায় ডিস ক্যাবল ব্যবসা হুমকির মুখে পড়েছে। স্বাভাবিক ডিশ সংযোগ না পাওয়ায় ক্ষোভে ফুসে উঠছে প্রায় ২ লাখ গ্রাহক। গ্রাহক ও কেবল অপারেটরদের সাথে অন্তদ্বন্দের আশংকাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন কুষ্টিয়া ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক ব্যবসায়ীরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়স্থ কেটিটিভি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, ‘কুষ্টিয়া ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক’ কুষ্টিয়া জেলা শাখার অধীনে বাংলাদেশের তথ্য প্রচার মন্ত্রণালয় অনুমোদিত দেশীয় চ্যানেল চালানোর পাশাপাশি সরকার অনুমোদিত সব পে-চ্যানেল চালিয়ে আসছে। বর্তমানে কুষ্টিয়া ক্যাবল টিভি ও কণিকা ক্যাবল টিভির অধীনে প্রায় ২ লাখ গ্রাহক রয়েছে। তারা নিয়মিতভাবে বিনোদন দেয়ার পাশাপাশি কুষ্টিয়া জেলায় অনুষ্ঠিত জাতীয়/স্থানীয় বিভিন্ন উৎসব ও দিবসের তথ্য প্রচার করে আসছেন। সেই সঙ্গে কুষ্টিয়ার মানুষের তথ্যসেবা প্রদানে কুষ্টিয়া ক্যাবল টিভি ও কণিকা টিভি নেটওয়ার্ক সরকারের নির্ধারিত ভ্যাট ট্যাক্স দিয়ে সব ধরণের সেবা দিয়ে আসছে। তারা আরও জানান, গত সোমবার ১২ জুন কুষ্টিয়া শহরের খাজা নগর এলাকার ‘ডট কম’ প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. মকবুল হোসেন ও তার সহযোগীরা অবৈধভাবে বটতলা থেকে মিরপুর উপজেলার হালসা পর্যন্ত মেসেঞ্জার অপটিক্যাল ফাইবার কেটে টুকরো টুকরো করে ফেলে। যে কারণে ওই এলাকার কয়েক হাজার মানুষ ক্যাবল টিভির সেবা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী সব গ্রাহকই একটি নির্দিষ্ট ফি দিয়ে সংযোগ নিয়ে থাকেন। এমতাবস্থায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় ওই এলাকার গ্রাহকদের সঙ্গে ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক ও কণিকা ক্যাবল কর্তৃপক্ষের সম্পর্কের অবনতি ঘটছে এবং বাকবিতন্ডার পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, পাইরেসি করে কোনো চ্যানেল চালানো যাবে না মর্মে বলা থাকলেও। কণিকা ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কের সদস্য থাকাকালীন মকবুল বৈধ পে-চ্যানেল চালানোতে অস্বীকার করায় কণিকা ক্যাবলের সঙ্গে মকবুলের সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন হয়। তারপর থেকেই মুকবুল উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে কুষ্টিয়া ক্যাবল টিভি ও কণিকা ক্যাবল টিভির অপটিক্যাল ফাইবার কেটে একটি বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তারা আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কুষ্টিয়া মডেল থানায় মুকবুলের বিরুদ্ধে দুইটা সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। মকবুলদেও বিরুদ্ধে প্রশাসনের ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন। এ সময় এ সময় কোয়াব কুষ্টিয়া জেলার সভাপতি খন্দকার  শহিদুল ইসলাম পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম মিলন, বিশ্ব বিশ্ব, মাজু ও কনিকা কেবল টিভি নেটওয়ার্কের আতিয়ার রহসানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত (তদন্ত) ওসি জহুরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। যারাই জড়িত থাক তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান। উল্লেখ্য মকবুলরা অনেক আগেই থেকেই কণিকা কেবল টিভি নেটওয়ার্কের অপটিক্যাল ফাইবার কাটাকাটি করে বৈধ ব্যবসায়ীদের ব্যবসা বন্ধ করে দিয়েছে। কথিত ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক বানানোর পাঁয়তারা করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640