1. nannunews7@gmail.com : admin :
May 27, 2024, 12:11 am
শিরোনাম :
উপকূলে ঘূর্ণিঝড়রিমালেরআঘাত আলমডাঙ্গায় ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ঝোড়ো হওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি, খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম আলমডাঙ্গার বাঁশবাড়িয়া গ্রামে ঈদগাহ পূণনির্মাণ নিয়ে দুগ্রুপে চরম বিরোধ বাড়ি ঘর ভাঙচুর আলমডাঙ্গায় মিথ্যা অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করার প্রতিবাদে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন কুষ্টিয়ার মিরপুরের ভেদামারীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে-আহত-১০ কাঙ্খিত সেবা নেই, তবুও ইবির পরিবহন খাতে বছরে বিপুল ব্যয় ! মিরপুরে হাতের রগ কাটা কৃষি ব্যাংক কর্মচারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার কুমারখালীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত জয়নাবাদের তারিকের অবশেষে মৃত্ব্য হত্যাকান্ডঘটিয়েছে চেয়ারম্যান এনামুল হক মঞ্জুঃ আব্দুল মান্নান খান কুষ্টিয়ায় স্বাক্ষর জালিয়াতি কান্ডে সেই প্রতারক মীর সামিউল’র জামিন না মঞ্জুর, একদিনের রিমান্ড মিষ্টি আলু চাষ কৌশল

বন্যা নিয়ন্ত্রণে খুলে দেওয়া হলো ফেনী রেগুলেটরের ৪০ গেট

  • প্রকাশিত সময় Tuesday, June 21, 2022
  • 57 বার পড়া হয়েছে

ভারী বৃষ্টিপাত ও ভারতের পাহাড়ি ঢলে ফুলগাজী ও পরশুরাম উপজেলাকে সম্ভাব্য বন্যার কবল থেকে রক্ষায় সোনাগাজীর ফেনী (মুহুরী প্রজেক্ট) রেগুলেটরের ৪০টি গেট খুলে দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।
ফেনী পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী নুর নবী জানান, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত একদিনে মুহুরী নদীতে ১২৩ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। মুহুরী রেগুলেটরে স্বাভাবিক পানি প্রবাহ ২ দশমিক ৭ সেন্টিমিটার হলেও বর্তমানে সেই প্রবাহ ৩ দশমিক ৯ সেন্টিমিটারে ঠেকেছে। পানির প্রবাহ ৪ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার হলে বন্যার আশঙ্কা রয়েছে।
তিনি বলেন, “সোমবার সারাদিনে মুহুরী নদীর ১২২ কিলোমিটার বাঁধের চারটি স্থান ভেঙে ফুলগাজী ও পরশুরামের কয়েকটি গ্রামে পানি প্রবেশ করায় বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। দুই উপজেলা যাতে বন্যার কবলে না পড়ে সেই বিবেচনায় অতিরিক্ত পানি সরে যেতে রেগুলেটরের সব গেট খুলে দেওয়া হয়েছে।”
এদিকে সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মুহুরী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ফুলগাজী উপজেলার উত্তর দৌলতপুর, বরইয়া ও দেড়পাড়া ভেঙে অন্তত ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয় বলে পানি উন্নয়ন বোর্ড ফেনীর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আক্তার হোসেন জানিয়েছেন।
হঠাৎ বন্যায় ফুলগাজী বাজারের প্রধান সড়ক ও নি¤œাঞ্চল তলিয়ে যায়। পানিবন্দি হয়ে পড়ে প্রায় চার শতাধিক পরিবারের সহস্রাধিক মানুষ। ভেসে গেছে শতাধিক পুকুর ও মাছের ঘের। ফসলি জমিসহ ডুবে গেছে বিস্তীর্ণ সবজির মাঠ।
এছাড়া সোমবার সন্ধ্যায় মুহুরী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পরশুরাম উপজেলার পশ্চিম অলকা স্থানে বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।
ফুলগাজী বাজারের ঝর্ণা স্টোরের মালিক জহরলাল জানান, পাহাড়ি ঢলে বাজার ডুবে তার দোকানে পানি ঢুকে চাল, চিনি ও লবণসহ সব নিত্যপন্য নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তার প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।
ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সেলিম জানান, পাহাড়ি ঢল ও উজানের পানির চাপে সোমবার সকালে মুহুরী নদীর বেড়িবাঁধের ফুলগাজী উপজেলার দরবারপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বরইয়া রতন মেম্বারের বাড়ি সংলগ্ন স্থানে ভাঙনের সৃষ্টি হয়। একই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের উত্তর দৌলতপুর সেকান্তর মাস্টার বাড়ি এলাকা ও একই ইউনিয়নের দেড়পাড়া এলাকায়।
এতে সদর ইউনিয়নের দেড়পাড়া, নিলক্ষী, উত্তর নিলখী, উত্তর শ্রীপুর, দক্ষিণ শ্রীপুর, উত্তর দৌলতপুর, দক্ষিণ দৌলতপুর, গাবতলা, মনতলা, গোসাইপুর, দরবারপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বরইয়া ও বসন্ত পুরসহ অন্তত ১২টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।
ফুলগাজীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফুন নাহার জানান, মুহুরী নদীর বেড়িবাঁধে ভেঙে যাওয়া স্থানগুলো পরিদর্শন করা হয়েছে। যে স্থানে পানি কমে গেছে সে স্থান দ্রুত মেরামতের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।
ইউএনও আরও বলেন, “পানিবন্দি মানুষগুলোর মাঝে পাঁচশ প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আরও ত্রাণ বিতরণ করা হবে।”
ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলিম মজুমদার বলেন, “প্রতিবছর বন্যায় এ উপজেলায় ব্যাপক ক্ষতি হয়। ক্ষতিগ্রস্থরা ত্রাণ চায় না; তারা বেড়িবাঁধে স্থায়ী মেরামত চায়।”
পানি উন্নয়ন বোর্ড ফেনী কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী জহির উদ্দিন জানান, মুহুরী নদীতে পানির লেবেল ১৩ মিটার পর্যন্ত স্বাভাবিক। এর উপরে গেলে নদীর উপচে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করতে পারে। সোমবার রাতে মুহুরী নদীতে পানি ১৪ দশমিক ২৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।
তিনি বলেন, “বাঁধ ভাঙার খবর শুনে আমাদের লোকজন ঘটনাস্থলে যেয়ে বিষয়টি নিয়মিত মনিটর করছে। পানি নেমে গেলে ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ ও বাঁধের ভেঙে যাওয়া স্থানগুলো দ্রুত মেরামত করা হবে।”
ইতোপূর্বেও মুহুরী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ২১টি ঝুঁকিপূর্ণ স্থান চিহ্নিত করে মেরামতের জন্য বরাদ্দ চাওয়া হয়েছিল। তা এখনও পাওয়া যায়নি বলে জানান পাউবির এ কর্মকর্তা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640