1. nannunews7@gmail.com : admin :
April 24, 2024, 10:25 am

ঝড়ে বিধস্ত ঘরবাড়ী পুর্নবাসন ও ফলজ-বনজ- বৃক্ষ’র জন্য সহায়তা প্রদান করা হবে

  • প্রকাশিত সময় Sunday, May 22, 2022
  • 53 বার পড়া হয়েছে

কাল বৈশাখীর তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্থ্য এলাকা পরিদর্শনে উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা

বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্নের দুদিন অতিবাহিত

কাগজ প্রতিবেদক ॥ হটাৎ কাল বৈশাখীর তান্ডবে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আব্দালপুর, ঝাউদিয়া, পাটিকাবাড়ী, মনোহরদিয়া ইউনিয়নে ৩ হাজার সেমি পাকা, কাচা ঘরবাড়ী সম্পুর্ণ বিধস্ত ও আম, লিচু, কাঠাল, নারকেল, লেবুসহ বিভিন্ন প্রকার কয়েক হাজার ফলজ, মেহগনি, শিশু, জামসহ বিভিন্ন বনজ প্রায় ৩ হাজার গাছ উপড়ে পড়েছে। মাঠের বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে ঝাউদিয়ায় গাছ চাপা পড়ে আতেজান নেছা ও চায়না খাতুন নামে দুজন মহিলা নিহত হয়েছে আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন। ১৪শ মিটার পল্লী বিদ্যুত লাইন সংযোগ বিছিন্ন রয়েছে। গতকাল পর্যন্ত উল্লেখিত চারটি ইউনিয়নে পল্লী বিদ্যুত সংযোগ সম্পুর্ণ বিচ্ছিন্ন ছিল। গতকাল সরোজমিনে সদর উপজেলার আব্দালপুর ইউনিয়নের গোপালপুর, দর্গাপাড়াসহ বেশ কয়েকটি এলাকা পরিদর্শনে গেলে দেখা যায় তখনও রাস্তার উপর থেকে উপড়ে পড়া গাছ কেটে অপসারণের কাজ চলছে। বৈদ্যুতিক পোলগুলো তখনও হেলে পড়ে আছে যে ফসলের মাঠে যতদুর চোখ যায় শুধু হেলে পড়া গাছের সারি, বিধস্ত হয়ে যাওয়া পান ও কলার বরজ। এলোমেলো হয়ে আছে বৈদ্যুতিক লাইন। মাটির, খড়ে, করগেট টিনের বাসিন্দারা অধিকাংশই খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে। নিজের বাড়ী ভেঙ্গে পড়ায় পাশে অন্যের বাড়ীতে আশ্রয় নিয়েছে। বিশুদ্ধ পানি, রাতে আলোহীন এক ভুতুড়ে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

আব্দালপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে সকাল ৯টায় কৃষক আলম, সুমন, আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান, বৃদ্ধ সখিনা খাতুনের বাড়ীতে উপস্থিত হতেই তারা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতাকে খুব বিনয় কন্ঠে জানালো তাদের সব কিছু শেষ। উঠানের উপর মাটির দেয়াল দেয়া ঘরটির চাল নেই, বাড়ীর বাইরে মেহগনি, শিশু, কাঠাল, লিচুর গাছ উপড়ে পড়েছে। পরিবারের সকলে মিলে গাছ কেটে অপসারণের চেষ্টা চলছে। ঘরে খাবার নেই, বিদ্যুত নেই। আওয়ামীলীগ নেতা শাহজান আলী শারিরিক প্রতিবন্ধী। ঝড়ের দিন নিজ ঘরের মধ্যে আটকা পড়েছিল পরে আশপাশের লোকজন তাকে ঘর থেকে উদ্ধার করে। সে জানায়, আল্লাহ তাকে হায়াত দিয়েছেন তার একটি মেয়ে। গ্রামের অন্যমেয়েরা তাকে উদ্ধার করেছে তারা সকলেই তার মেয়ের মত। দর্গাপাড়ার সুমন ঝড়ের দিন আহত হয়ে ঘরের বারান্দায় চিকিৎসা নিচ্ছে। তার ঘরের চারপাশে দেয়াল রয়েছে চাল উড়ে গেছে। প্রচন্ড ঝড়ের সময় সে দুই হাত দিয়ে টিনের চাল ধরে রেখেছিল এক সময় ঝড়ের শক্তির কাছে সে হেরে যায় তার হাত কেটে চালাটি উড়ে যায়।  সারা বাড়ীতে আসবাব পত্র, ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। তিন চারজন মিলে গাছ কাটছে। তারও বেশ কয়েকটি গাছ উপড়ে পড়েছে। গোপালপুর থেকে দর্গাপাড়া প্রতিটি পাড়ায় যেতে রাস্তার দু ধারে সারি সারি বিভিন্ন ফলজ, বনজ গাছ উপড়ে রাস্তার উপর পড়ে আছে। করগেট টিনের চালা ঘর উড়ে গেছে দেয়াল রয়েছে। সেখান থেকে একটু এগিয়ে কৃষক সরোয়ারের বাড়ীতে দেখা গেল আরও বেদনায়ক দৃশ্য। তার থাকবার ঘরটি পুরো মাটির দেয়াল দেয়া। পুরো ঘরটি খন্ড খন্ড হয়ে ভেঙ্গে গেছে, চাল কোথায় গেছে জানে না। তার তিনটি ঘরই ভেঙ্গে গেছে। বাড়ীর কাঠাল গাছ, মেগগনি গাছ, কলা গাছ সব উপড়ে পড়েছে। পুরো ইউনিয়নে পায়ে হেটে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা ক্ষতিগ্রস্থ্য নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ, শিশু, কিশোরসহ সব বয়সী মানুষের কাছে যান তাদের খোঁজ খবর নেন। এ সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ কবলিত দেশ। বর্তমান সরকার যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুুত রয়েছে। আগে যেখানে সাধারণ ঝড়, বন্যায় অসংখ্য মানুষের প্রাণ হানি ঘটতো। আল্লাহর অশেষ রহমতে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর দুর্যোগ মন্ত্রণালয়কে আরও শক্তিশালী করেছে। সমুদ্র তীরবর্তি জেলা সমুহে একাধিক আশ্রয় কেন্দ্র, নিরাপত্তা ব্যবস্থা। খাবার, বিশুদ্ধ পানি, আগে থেকেই ঝড়, বন্যার খবর আবহাওয়ার পুর্বাভাস ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বিশেষ নির্দেশ দিয়েছেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ্য ঘরবাড়ী পুর্নবাসন এবং উপড়ে পড়া ফলজ-বনজ গাছে ক্ষতিগ্রস্থ্য মানুষকে সহায়তা প্রদানেরও তাগিদ দিয়েছেন তিনি। এ জন্য কৃষি বিভাগ, ত্রাণ ও দুর্যোগ শাখাকে দ্রুত তালিকা প্রস্তুত করে প্রেরণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।  পরিদর্শনকালে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ হাসান মেহেদী বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নিদের্শ অনুযায়ী আমাদের নেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি এই সদর উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্থ্য সকল মানুষকে সব ধরণের সহায়তা করতে কাজ করে যাচ্ছেন। আপনারা কোন আতংকিত হবেন না। সাহস রাখুন। এ সময় আব্দালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী হায়দার স্বপন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আরব আলী, গোলাম মস্তোফা, ছাত্রলীগ নেতা আনিস, শহর ছাত্রলীগ নেতা সর্দ্দার পাভেল, হাসিব কোরাইশী, ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ আফিল উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এর পর বেলা ১১ টার দিকে পাটিকাবাড়ী ইউনিয়নে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ্য সাদমান এগ্রোতে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা উপস্থিত হন। সেখানে প্রায় ৪ হাজার লেয়ার মুরগীর ডিমের খামারটি প্রায় সম্পুর্ণ বিধস্ত হয়ে গেছে। খোলা আকাশের নিচে রোদে মুরগীগুলোকে খাবার, পানি দিয়ে খামারের মালিকরা হিমশিম খাচ্ছে। খামারের স্বত্বাধিকারী মাসুদ জানান, এ পর্যন্ত তার প্রায় ৫শ মুরগী মারা গেছে। প্রতিদিন ১ শ থেকে ২শ মৃুরগী মারা যাচ্ছে। এ সময় পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সফর উদ্দিনসহ দলীয় নেতা কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640