1. nannunews7@gmail.com : admin :
April 21, 2024, 6:20 am
শিরোনাম :
গানবাজনা ও গাজীর গান বর্জনের নির্দেশনা দিলেন পাটিকাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান কোটি টাকা আত্মসাতে কুষ্টিয়া শহর  সমাজ সেবা অফিসার জহিরুল ইসলামের সাজা বদলি কুষ্টিয়াসহ দক্ষিণাঞ্চলে হাহাকার স্তর নেমে যাওয়ায় শুস্ক মৌসুমে পানি শুন্য কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ার মিরপুরে অস্ত্রসহ আটক ভেড়ামারায় আবারও অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই হলো ৫০ বিঘা পানের বরজ জেলা পরিষদের শূন্য হওয়া সদস্য পদে নির্বাচন করবেন আওয়ামী লীগ নেতা পান্না বিশ্বাস টানা চারদিন দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা চুয়াডাঙ্গায়, হিট এলার্ট জারি পাহাড়ে সম্ভাবনাময় কফি-কাজুবাদাম চাষে সরকারি প্রকল্প একীভূত হতে যাওয়া পাঁচ দুর্বল ব্যাংকের খেলাপি ঋণ ২৫ হাজার কোটি টাকা উপজেলা নির্বাচনের সময় আওয়ামী লীগের সম্মেলন ও কমিটি গঠন বন্ধ থাকবে : ওবায়দুল কাদের

ট্রেনের টিকেটের জন্য বিড়ম্বনা

  • প্রকাশিত সময় Friday, April 22, 2022
  • 89 বার পড়া হয়েছে

ছুটির দিনে যাত্রীর চাপ

ঢাকা অফিস ॥ পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ। বিশ রমজানে সরকারী ছুটির দিন শুক্রবারে রেলস্টেশন, বাসস্ট্যান্ড এবং লঞ্চঘাটে অতিরিক্ত মানুষের ভিড় দেখা গেছে। তবে সবচেয়ে বেশি চাপ ছিল কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে। সেখানে টিকেট কাউন্টারগুলোতে দেখা গেছে উপচেপড়া ভিড়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণার পর শুক্রবার সকাল থেকেই পরিবার পরিজন নিয়ে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন রাজধানীবাসী। ভোগান্তি এড়িয়ে নিরাপদে পরিবারকে গ্রামের বাড়িতে রেখে ঈদে বাড়ি যাবেন এমন মানুষই ভিড় জমান স্টেশন ও বাস স্ট্যান্ডগুলোতে। এছাড়া রাজধানীর সদরঘাট এবং বিমানবন্দরে অভ্যন্তরীণ রুটের টার্মিনালে যাত্রীর সংখ্যা বেশি ছিল।
সরেজমিনে দেখা গেছে, ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রির একদিন আগেই শুক্রবার কমলাপুর রেলস্টেশনে টিকেট কিনতে আসা যাত্রীদের ভিড় বেড়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে কমলাপুর রেলস্টেশনে যাত্রীদের ভিড় দেখা যায়। পরবর্তীতে ভিড় আরও বাড়তে থাকে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় কয়েকদিনের তুলনায় স্টেশনে ভিড় বেশি। যাত্রীরা শুক্রবার থেকে ২৬ এপ্রিলের অগ্রিম টিকেট নিচ্ছেন। এছাড়া আজ শনিবার সকাল থেকে শুরু হবে ঈদ যাত্রার অগ্রিম টিকেট বিক্রি। এই টিকেট পেতে রাজশাহী, দিনাজপুর এবং চট্টগ্রাম রুটের যাত্রীরা বিকেল থেকেই স্টেশনে লাইনে দাঁড়াতে শুরু করেছেন। টিকেট দেয়ার ১২-১৫ ঘণ্টা আগেই লাইনে দাঁড়ানোর কারণে নিয়মিত যাত্রার টিকেট প্রত্যাশীদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।
রেলওয়ের নিয়মানুযায়ী, যাত্রার পাঁচ দিন আগে ট্রেনের টিকেট বিক্রি শুরু হবে। সেই হিসেবে শনিবার বিক্রি শুরু হবে ২৭ এপ্রিলের টিকেট। ঈদের সময় যাত্রী পরিবহন সক্ষমতা বাড়াতে ৯৩টি অতিরিক্ত বগি যুক্ত হবে রেলের বহরে। সকাল আটটা থেকে কাউন্টারে টিকেট বিক্রি হবে। অনলাইনে টিকেট দেয়া হবে সকাল ছয়টা থেকে। কমলাপুর স্টেশনে ২৩টি কাউন্টারে টিকেট বিক্রি হবে। একটি কাউন্টার থাকবে নারীদের জন্য সংরক্ষিত। ২৫ এপ্রিল থেকে সব ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি বন্ধ থাকবে। ঈদযাত্রায় টিকেট কালোবাজারি ঠেকাতে স্টেশনে টহল ও নজরদাবি থাকবে। ইতোমধ্যে ট্রেনের আগাম টিকেট বিক্রির প্রস্তুতি শেষ করেছে কর্তৃপক্ষ। ঈদের টিকেট বিক্রির একদিন আগেই নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনী র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এবং অতিরিক্ত পুলিশ ও আনসার মোতায়েন করা হয়েছে কমলাপুরে।
রাজধানীর বাসাবো থেকে আগামী ২৬ এপ্রিলের চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী বনলতা এক্সপ্রেসের টিকেট কাটতে এসেছেন সরকারী চাকরিজীবী রুহিন হোসেন। তিনি বলেন, ২৭ এপ্রিলের অগ্রিম টিকেটের জন্য শনিবার কমলাপুরে প্রচন্ড ভিড় হবে। তাই ভেবেছিলাম একদিন আগের টিকেট কেটে চলে যাব, সেক্ষেত্রে ভিড় তেমন একটা হবে না। কিন্তু সকালে এসে দেখি পরিস্থিতি উল্টো। কমলাপুরে এসে দেখি প্রচ- ভিড়। দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। লাইনে এত দূর দাঁড়িয়েছি আমার সিরিয়াল আসতে আসতে মনে হচ্ছে না আর টিকেট পাব।
তার থেকে কিছুটা দূরে দাঁড়িয়ে রয়েছে লিখন আহমেদ। তিনি আগামী ২৬ এপ্রিলের নীলসাগর ট্রেনের টিকেটপ্রত্যাশী। তিনি বলেন, দিনাজপুরের টিকেট কাটতে সকালে কমলাপুর এসে দেখি হাজার হাজার মানুষ। ভিড় এত বেশি যে লাইন বাইরের দিকে পর্যন্ত চলে গেছে। ছোট ভাইকে অনলাইনে টিকেট কাটার চেষ্টা করতে বলেছি। আমি সশরীরে কাউন্টারে এসেছি। ছোট ভাই অনলাইনে টিকেট পায়নি। আমি এখনও লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। জানি না কাউন্টার থেকে টিকেট পাব কি না। তবুও তিনি ঠাঁয় দাঁড়িয়ে রয়েছেন টিকেটের আশায়।
কমলাপুর রেলস্টেশনে টিকেট কাটতে আসা যাত্রীদের ভিড় বেশি উল্লেখ করে কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার বলেন, যারা ২৬ তারিখ বা তার আগে ট্রেনে করে ঢাকা ছেড়ে যেতে চায়, তারাই শুক্রবারে টিকেট কাটতে এসেছেন। সব কাউন্টারে টিকেট দেয়া হচ্ছে। যতক্ষণ টিকেট থাকবে ততক্ষণ যাত্রীরা টিকেট পাবে। কাউন্টারের পাশাপাশি অনলাইনেও টিকেট দেয়া হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, রেলের নিয়মানুযায়ী এবার স্টেশনের কাউন্টারে অগ্রিম টিকেট কাটার সময় যাত্রীদের এনআইডি বা জন্মসনদের ফটোকপি দেখাতে হবে। একজন যাত্রী চারজনের টিকেট কাটবে, সে ক্ষেত্রে চারজনের এনআইডি বা জন্মসনদ দেখাতে হবে, না হলে টিকেট দেয়া হবে না।
প্রসঙ্গত, এবার ট্রেনে ঈদযাত্রার আগাম টিকেট বিক্রি শুরু হবে ২৩ এপ্রিল থেকে। প্রথম দিনে বিক্রি হবে ২৭ এপ্রিলের টিকেট। ২৪ এপ্রিল ২৮ এপ্রিলের, ২৫ এপ্রিল ২৯ এপ্রিলের, ২৬ এপ্রিল ৩০ এপ্রিলের এবং ২৭ এপ্রিল ১ মের ট্রেনের টিকেট বিক্রি করা হবে। ঈদের পর ফিরতি যাত্রা হবে ৫ মে। সেই টিকেট বিক্রি হবে ১ মে।
চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২ মে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে ধরে নিয়ে টিকেট বিক্রির এই সময়সূচী নির্ধারণ করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। রোজা ৩০টি হলে অর্থাৎ ৩ মে ঈদ হলে ২৮ এপ্রিল দেয়া হবে ২ মের ট্রেনের টিকেট।
রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, গত দুই বছর করোনার কারণে ঈদ-উল-ফিতরের সময় ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। দুই বছর পর ঈদযাত্রা ফিরছে ট্রেনে। নতুন করে ঈদে ট্রেন যাত্রার স্বাদ নিতে চাচ্ছেন অনেকেই। আবার ট্রেনে চেপে বাড়ি যেতে শিডিউলে কিছুটা হেরফের হলেও যানজটের আশঙ্কা থাকে না। তাই অনেক যাত্রীরই পছন্দের যান ট্রেন। সেই কারণে ট্রেনের ওপর চাপটাও বেশি থাকে। তবে এবার আগে মতো ১০ দিন আগে নয়, স্বাভাবিক সময়ের মতোই পাঁচ দিন আগে আগাম টিকেট বিক্রি হবে। ঈদযাত্রার বিক্রিত টিকেট ফেরতে নেবে না রেল।
রেলওয়ে জানিয়েছে, ঈদযাত্রায় নিয়মিত ১০২টি আন্তঃনগর ট্রেনের সঙ্গে স্পেশাল ছয় জোড়া ট্রেন চলবে। ঈদের আগে ঢাকা-কলকতা রুটের মৈত্রী এক্সপ্রেস চালু না হলে, তার ইঞ্জিন বগি দিয়ে খুলনা স্পেশাল নামে ঢাকা-খুলনা রুটে একটি বাড়তি ট্রেন চালানো হবে। ঈদের দিন শোলাকিয়া স্পেশাল নামে এক জোড়া ট্রেন চলবে।
রাজধানীর টিটিপাড়া স্টারলাইন বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা গেছে, স্বাভাবিকের চেয়ে শুক্রবারে যাত্রীদের চাপ বেশি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ঘোষণা হওয়ায় ঢাকা চট্টগ্রাম রোডের বাসগুলোতে নারী ও শিশু এবং অল্প বয়স্ক যাত্রীদের চাপ বেশি ছিল। যাত্রীদের একজন ইসলামী ব্যাংকে কর্মরত ইসমাইল হোসেন বলেন, আগামী শুক্রবারে চট্টগ্রামে বাসে যেতে অতিরিক্ত চাপ থাকবে। তাই ছেলের স্কুল ছুটি হওয়ায় তিনি পরিবারকে বাড়িতে রেখে শনিবারে ঢাকা ফিরে আসবেন। পরবর্তীতে ঈদের ছুটিতে তিনি চট্টগ্রামে যাবেন।
বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রমেশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, ঈদে যাত্রীদের ভিড় সেই অর্থে এখনও শুরু হয়নি। তবে আগের তুলনায় বাসে যাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে। ঈদের দিন যতই সামনে চলে আসবে ততই বাসে যাত্রীর সংখ্যা বাড়বে। তিনি আরও বলেন, ঈদ যাত্রায় মানুষের ভোগান্তি কমাতে মহাসড়কগুলোতে সব ধরনের সংস্কার কাজ বন্ধ করতে হবে। আর যাত্রীবাহী বাস ছাড়া অন্যান্য পরিবহনের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
করোনার মধ্যেও গত বছর রাজধানী ছেড়েছিল প্রায় ১ কোটি ২৬ লাখ মানুষ। এবার করোনার প্রকোপ কম। ঈদযাত্রায় ঘরমুখী মানুষের চাপ বেশি থাকবে। সড়কেও যানবাহনের চাপ তাই বেশিই থাকবে। কিন্তু যানবাহনের এই চাপ সামাল দিতে পুরোপুরি প্রস্তুত নয় দেশের চারটি প্রধান মহাসড়ক। এ অবস্থায় ঈদযাত্রায় মহাসড়কে ভোগান্তি সঙ্গে করেই চলতে হবে মানুষকে।
ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে আইজিপির নির্দেশ ঃ ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত নির্বিঘœ করতে পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। তিনি বলেছেন, কোভিড-১৯ এর ক্রান্তিকালে ঈদ-উল-ফিতর সামনে রেখে অনেক মানুষ গ্রামে যাবেন। ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করার জন্য মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আইজিপি বলেন, পুলিশের প্রতিটি ইউনিটের মধ্যে সমন্বয়ের মাধ্যমে মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে তিনি বিট পুলিশিং এবং কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলার নির্দেশ দেন। ঈদ যাত্রায় কেউ কোন সমস্যায় পড়লে তাকে সহযোগিতা করার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান আইজিপি। তিনি ঈদকে কেন্দ্র করে বিশেষায়িত নৌ পুলিশ, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ, টুরিস্ট পুলিশ ইউনিটকে নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।
সড়ক যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে ফেরিতে শৃঙ্খলা রক্ষার গুরুত্ব ঃ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন সড়ক যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটের শৃঙ্খলা রক্ষায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়ার দাবি জানিয়েছে নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটি নামের বেসরকারী এক সংগঠন। একই সঙ্গে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া-মাঝিরঘাট নৌপথে ফেরিসংখ্যা বৃদ্ধি, সার্বক্ষণিক ফেরি চলাচল অব্যাহত রাখা এবং অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা এড়াতে এ দুটি নৌপথসহ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে লঞ্চ চলাচলের ওপর কঠোর নজরদারির আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি। বৃহস্পতিবার সংগঠনের সভাপতি হাজী মোহাম্মদ শহীদ মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার দে এক বিবৃতিতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সব সংস্থার প্রতি এই আহ্বান জানিয়েছেন।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহসড়কে যানজট ঃ কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার শহীদনগর এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চার লেনের সংস্কারকাজ শুক্রবার সকাল থেকে পুনরায় শুরু হয়েছে। সড়ক সংস্কারের কারণে যাত্রীবাহী বাস, ব্যক্তিগত গাড়ি, এ্যাম্বুলেন্স, মাইক্রোবাস, সিএনজিচালিত অটোরিক্সাসহ বিভিন্ন যান চলাচল ব্যাহত হয়। চার লেনের যানবাহন দুই লেনে এবং এলোপাতাড়ি চলাচলের কারণে সড়কে তীব্র যানজট দেখা দেয়। উপজেলার আমিরাবাদ থেকে মেঘনা গোমতী সেতু এলাকা পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকায় যানজট ছড়িয়ে পড়ে। রোজা ও তীব্র গরমের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকে পড়ে যানবাহনের চালক ও যাত্রীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640