1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 28, 2024, 3:30 am

পাবনায় তীব্র অক্সিজেন সংকট ২৪ ঘন্টায় ৭ জন রোগীর মৃত্যু

  • প্রকাশিত সময় Monday, July 5, 2021
  • 113 বার পড়া হয়েছে

পাবনা প্রতিনিধি ॥ পাবনায় তীব্র অক্সিজেন সংকট দেখা দিয়েছে। গেল ২৪ ঘন্টায় অক্সিজেন সংকটে ৭ জন  করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ জন করোনা রোগী মারা গেছে। সোমবার দুপুরে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা. সালেহ মোহাম্মদ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, মৃত ব্যক্তিরা হলেন, পাবনা শহরের দিলালপুর ও গোপালপুর এলাকার নূরে আলম ও নাজমুল ইসলাম, পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুর গ্রামের মৃত আলহাজ দায়েন বিশ্বাসের স্ত্রী রাশিদা বেগম, ঈশ্বরদী উপজেলার চরকুরুলিয়া গ্রামের মৃত কোরবান সরকারের স্ত্রী রোকেয়া খাতুন, চরমিরকামারী মাথালপাড়ার জয়েন উদ্দিন খানের ছেলে আমিরুল ইসলাম খান, শৈলপাড়া গ্রামের শাহীনের স্ত্রী রিমা খাতুন এবং মুলাডুলি ইউনিয়নের চকনারিচা বাগাবাড়িয়া গ্রামের রিজু প্রামানিক। মৃতদের সবার বয়স ৭৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। স্বজনদের অভিযোগ, হাসাপাতালের অক্সিজেন সংকটের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দায়িত্বে থাকা একজন সিনিয়র চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সংক্রমণ বাড়তে থাকায় পাবনা হাসপাতালে করোনা রোগীর চাপ ব্যপকভাবে বাড়ছে। হাসপাতালে এসেও রোগীদের বাইরে থেকে অক্সিজেন সংগ্রহ করতে হচ্ছে। তাতেও সংকট কাটছে না। ঘাটতির কারণে ঠিকমত অক্সিজেন সরবরাহ করতে না পারায় রোগীরা মারা গেছেন। মৃত্যু রাশিদা বেগমের ছেলে আলমগীর হোসাইন বলেন, আমার আম্মাকে রবিবার দুপুরে ঠান্ডা জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করেছিলাম। শুরু থেকেই অক্সিজেন সংকট ছিল। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। ১০ বার বলার পরও তারা আমার মায়ের জন্য একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার  দেয়নি। শেষে অক্সিজেন সংকট নিয়েই মায়ের মৃত্যু হলো। তিনি আরো জানান, হাসপাতালের প্রতিটি  রোগী প্রচন্ড কষ্ট পাচ্ছে। অক্সিজেনের অভাবে তার সামনে তিনজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন এক রোগীর ভাই মামুন হোসেন জানান, হাসপাতালে চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই বললেই চলে। অনেক ভাল রোগীকে করোনা ইউনিটে ভর্তি করে  রেখেছে। আমার বোনকে ১২ দিন আগে ভর্তি করেছি। পরেরদিন করোনা পরীক্ষার নমুনা দিলেও ১১ দিন অতিবাহিত হলেও ফলাফল পাচ্ছিনা। যার কারণে আমাদের রোগী এখন সুস্থ্য হলেও এই ওয়ার্ডে ভর্তি করে  রেখেছে। এব্যাপারে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা: সালেহ মোহাম্মদ আলী জানান, রোগীদের অনেকেই শেষ সময়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসে। আসলে শেষ সময়ে একজন করোনা রোগী হাসপাতালে আসলে কিছু করার থাকে না। যারা মারা গেছে তাদের বেশিরভাগই করোনা আক্রান্ত হয়ে শেষ সময়ে হাসপাতালে এসেছিল। তিনি আরো জানান, জেনারেল হাসপাতালে সেন্টাল অক্সিজেন চালু না থাকায় অক্সিজেনের সংকট দেখা দিচ্ছে। হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলাও অকেজো হয়ে পড়ে আছে। মেডিফোল্ড সিস্টেমে বড় বোতলে অক্সিজেন সরবরাহ শুরু হয়েছে। তবে যে হারে রোগি বাড়ছে তাতে রোগীর চাপের সাথে পাল্লা দিতে আরো অক্সিজেন প্রয়োজন। এদিকে পাবনায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও এখনো করোনার চিকিৎসায় তেমন অগ্রগতি হয়নি। পিসিআর ল্যাবের অনুমোদন হলেও এখনো তা স্থাপন হয়নি। এ ছাড়া করোনা চিকিৎসায় পাবনা  জেনারেল হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহের কাজ এখনো শেষ হয়নি। এ অবস্থায় করোনা সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640