1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 28, 2024, 7:46 pm
শিরোনাম :
আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের বার্ষিক বনভোজন-২০২৪ অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক সভা কক্ষে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্টিত বারখাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরুস্কার বিতরণী দৌলতপুরের মাদক স¤্রাজ্ঞী শেফালী অস্ত্র ও ১৯৩৬ বোতল ফেন্সিডিলসহ র‌্যাবের হাতে আটক কয়া স্কুল মাঠে ফুটবল একাডেমির উদ্বোধনকালে এমপি আব্দুর রউফ তরুণ ও যুব সমাজকে মাদকের হাত থেকে রক্ষায় খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই  দৌলতপুরে বিস্তৃর্ণ চর পারাপারে এক মাত্র ভরসা মোটরসাইকেল কুষ্টিয়া মুজিবুর রহমান মোমোরিয়াল ডায়াবেটিক হসপিটালের উদ্যোগে ডায়বেটিস সচেতনতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা কুষ্টিয়ায় সড়কে দুই ট্রাকের ধাক্কায় হেলপার নিহত আজ কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচন পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই : সংসদে প্রধানমন্ত্রী 

রিসোর্টে নারীসহ মামুনুল আটক, ছিনিয়ে নেয় হেফাজত

  • প্রকাশিত সময় Saturday, April 3, 2021
  • 146 বার পড়া হয়েছে

ঢাকা অফিস ॥ হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে এক নারীসহ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও রিসোর্টে আটক করেছে স্থানীয় জনতা। এদিকে মাওলানা মামুনুল হকের নারীসহ আটকের খবর ছড়িয়ে পড়লে হেফাজতে ইসলামের হাজার হাজার নেতা-কর্মী তাকে ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য সোনারগাঁও রিসোর্টে গিয়ে ব্যাপক ভাংচুর, সন্ত্রাসের তান্ডবলীলা চালায়। লাঠিসোটাধারী হাজার হাজার হেফাজত কর্মী সোনারগাঁও রিসোর্টে ইটপাটকেল নিক্ষেপ, লাঠিসোটা দিয়ে ভাংচুর, স্থানীয় সাংবাদিকদের মারধর করার ঘটনা ঘটিয়েছে। এদিকে মাওলানা মামুনুল হককে নারীসহ আটকের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল ছবি দেখে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শনিবার রাতের বেলায় হেফাজতের হাজার হাজার নেতা-কর্মী সোনারগাঁও রিসোর্ট ভাংচুর করে ভেতরে প্রবেশ করে মাওলানা মামুনুল হক ও তার কথিত স্ত্রীকে ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানোর জন্য বার্তা পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।
এদিকে মাওলানা মামুনুল হক বলেছেন, তার সঙ্গে আটক নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী। কিন্তু কাবিননামা বা কোন প্রমাণ দেখাতে পারেননি তিনি। তিনি বলেছেন, আটক ওই মহিলার নাম আমিনা তৈয়বা। দুই বছর আগে তাদের বিয়ে হয়েছে। আপনি একজন মাওলানা হয়ে দ্বিতীয় স্ত্রী নিয়ে রিসোর্টে আসছেন কেন ? স্থানীয় সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের কোন সদুত্তর দিতে পারেননি মামুনুল হক। শনিবার দুপুরে মাওলানা মামুনুল হক তার কথিত দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে সোনারগাঁও রিসোর্টে স্থানীয় জনতার হাতে আটক হওয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) টিআই মোশারফ হোসেন, সোনারগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) তবিদুর রহমান।
সোনারগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) তবিদুর রহমান বলেছেন, আমরা ঘটনাস্থলে রয়েছি। পুলিশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে ঘটনাটি অবহিত করা হয়েছে। আটক মাওলানা মামুনুল হক ও তার দাবি করা স্ত্রী আমিনা তৈয়বাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মামুনুল হককে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাশকতা, নৈরাজ্য ও নারকীয় তান্ডবের অভিযোগে তাকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন ইসলামী দলগুলো ও ইসলামী নেতৃবৃন্দ। রবিবারের মধ্যে তাকে গ্রেফতার না করা হলে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল কর্মসূচী পালনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা মোঃ ইসমাইল হোসেন। বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে পিপলস পার্টি আয়োজিত এক আলোচনা সভা থেকে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের কর্মসূচী পালনের হুমকি দেয়া হয়। সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, মাওলানা মামুনুল হক ও তার কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী হেফাজতের নেতাকর্মীদের জিম্মায় রয়েছেন।
স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব বর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের বিরোধিতা করে হেফজতে ইসলাম দেশের বিভিন্নস্থানে যে তান্ডব চালিয়েছে তার নেতৃত্বদান করেছেন তাদের মধ্যে মাওলানা মামুনুল হক অন্যতম ও শীর্ষ নেতা। মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের মতিঝিল শাপলা চত্বরে সন্ত্রাসের তান্ডবলীলা চালানো, হতাহত, নাশকতা, নৈরাজ্য চালানোর অভিযোগে মামলা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার উস্কানিদাতার কারণে কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুর হওয়া এবং ধর্মের অপব্যাখ্যা করে সন্ত্রাসে উস্কানিদাতার অভিযোগে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা এখন তদন্তাধীন।
সোনারগাঁও থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সোনারগাঁও রিসোর্টের ভেতর থেকে আটক নারীসহ মামুনুল হককে ছাড়িয়ে নেয়ার খবরে ব্যাপক উত্তেজনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। আশপাশের দোকানপাট, বাড়িঘর বন্ধ করে অন্যত্র নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছে মানুষজন। সোনারগাঁও থানার পুলিশ জানিয়েছেন, শনিবার, ৩ এপ্রিল বিকেল ৩টায় রয়াল রিসোর্টের ৫ম তালার ৫০১ নম্বর কক্ষে তাকে অবরুদ্ধ করা হয়। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের রয়্যাল রিসোর্টে ‘নারীসহ’ বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় জনগণের হামলার মুখে পড়েছেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম- মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে দেখা গেছে, মাওলানা মামুনুল হক বলছেন দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়েই তিনি সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে যান। মাওলানা মামুনুল হকের দল খেলাফতে মজলিসের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, দ্বিতীয় বিয়ের কথা দলীয়ভাবে অজানা ছিল। এ বিষয়টি নিয়ে মামুনুল হক আগে কোনও তথ্য প্রকাশ করেননি। মাওলানা মামুনুল হক শনিবার সকালেই মোহাম্মদপুর থেকে কেরানীগঞ্জে তার মাদ্রাসার উদ্দেশে যান। তার সঙ্গে ড্রাইভার ও সহকারী কেউই ছিলেন না। এরপর দলের সঙ্গে যোগাযোগ হয়নি বলে সূত্রটির দাবি।
ফেসবুক লাইভে দেখা গেছে, মাওলানা মামুনুল হক বলছেন, দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়েই তিনি সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে যান। তবে সূত্রটি তার দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি। মজলিসের দায়িত্বশীল এই সূত্রটি জানায়, দ্বিতীয় বিয়ের কথা দলীয়ভাবে আগে অজানা ছিল। এ বিষয়টি নিয়ে মামুনুল হক কোন তথ্য প্রকাশ করেননি। এ বিষয়ে জানতে চেয়ে মামুনুল হকের বড় ভাই মাওলানা মাহফুজুল হককে ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640