1. nannunews7@gmail.com : admin :
February 28, 2024, 10:09 am

বাংলাদেশ ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির খুলনা আন্তঃবিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত ॥ নানা অজুহাতে ইট ভাটা ভেঙ্গে দেওয়ার কারনে করানাকালীন সময়ে বেকার হয়ে যাওয়া কোটি কোটি শ্রমিকের জীবন অনিশ্চয়তার মধ্যে

  • প্রকাশিত সময় Saturday, January 30, 2021
  • 217 বার পড়া হয়েছে

কাগজ প্রতিবেদক ॥ বাংলাদেশ ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির খুলনা আন্তঃবিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত। গতকাল শনিবার দিনব্যাপী কুষ্টিয়া শহরের রাজারহাট মোড়স্থ্য আলো কমিউনিটি সেন্টারে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, নানা অজুহাতে ইট ভাটা ভেঙ্গে দেওয়ার কারনে করানাকালীন সময়ে বেকার হয়ে যাওয়া কোটি কোটি শ্রমিকের জীবন অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়বে। শুধু তাই নয়, বর্তমানে ইটভাটাগুলি বন্ধ হয়ে গেলে দেশের অবকাঠামো উন্নয়ন ব্যবহৃত হবে। সেই সাথে ২ কোটি ৫০ লক্ষ শ্রমিক বেকার হয়ে পড়বে। দেশের উন্নয়নের চাকা সচল করতে সড়ক ও মহাসড়ের নির্মান কাজের জন্য ভাটা থেকে ইট সংগ্রহ করে সে গুলো মেরামত ও রক্ষনাবেক্ষন করা হয়। শুধু তাই নয়, ভাটা গুলো এভাবে একেরপর এক বন্ধ হয়ে গেলে, মানুষের বাড়ী-ঘর, মসজিদ, মাদ্রসা, শিক্ষাপ্রতিষ্টানসহ গ্রামীন উন্নয়ন সম্পূর্ণ রুপে বাধাগ্রস্থ হবে। সরকারী-বেসরকারী ক্ষেত্রে ব্লক ইট ব্যবহার আরাম্ভ করার আগ মুহুত্ব পর্যন্ত উন্নয়নের স্বার্থে কাদামাটির ইট উৎপাদনমূখী রাখাটা জরুরী। জানা যায়, বিগত ২০০২ সালের পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক জারিকৃত পরিপত্র মোতাবেক সনাতন পদ্ধতির ড্রামের চিমনির পরিবর্তে পরিবেশ বান্ধব ১২০ ফিট উচচতা স্থায়ী চিমনী নির্মান করা হয়েছে। বিগত ২০১৩ সালে পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক সংশোধিত আইন এর ৮(ঙ) ধারা পরিবর্তন করা হয়। এতে আইনি জটিলতা সৃষ্টি হয়। এতে ভাটার মালিকগণ চরম ক্ষতিগ্রস্থ হয় কারন তারা আর নিবন্ধন করতে পারে না। ভাটা বন্ধ হলে, সরকার প্রতি বছর ভ্যাট, আইকর, স্থানীয় ভুমি উন্নয়ন করসহ প্রতি বছর ৪ হাজার ৫০ কোটি টাকা রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হবে। আলোচনা সভায় কুষ্টিয়া ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সভাপতি হাজী আক্তারুজ্জামান মিঠুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মেহেরপুর ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক এনামূল হক, যশোর ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মালেক, সাধারন সম্পাদক কাজী নাজির আহম্মেদ মন্নু, খুলনা ডুমুরিয়া ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ আব্দুল লতিফ, মাগুড়া ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলাম, ঝিনাইদহ ইট প্রস্তুত কারক মালিক সমিতির সভাপতি মাহামুদুল হকসহ খুলনা বিভাগের ১০ জেলার সভাপতি সাধারন সম্পাদকসহ ভাটামালিকগণ উপস্থিত ছিলেন। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকলে, আগামী ৪ঠা ফেব্রেয়ারী খুলনা বিভাগের ১০টি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান ও ৯ ফেব্রয়ারী থেকে অনিদৃষ্টকালীন সময়ে খুলনা বিভাগের সমস্থ্য ইট ভাটা মালিকগণ তাদের ইট বিক্রিয় ও সরবরাহ বন্ধের ডাক দিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Kushtiarkagoj
Design By Rubel Ahammed Nannu : 01711011640